রাজনীতি

১৪ দল জনগণের রায় মেনে নেবে: নাসিম

২৩ ডিসেম্বর ভোট। দিনক্ষণ ঘোষণার পর গ্রামেগঞ্জে নির্বাচনী উৎসব শুরু হয়েছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম জাতীয় ঐক্যফ্রন্টসহ সকল রাজনৈতিক দল ও জোটকে নির্বাচনে অংশগ্রহণের আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে। এ নির্বাচনে জনগণ যাদের রায় দেবে, তারাই পরবর্তী সরকার গঠন করবেন। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ১৪ দল জনগণের রায় মেনে নেবে।

এ সময় তিনি আমেরিকার ট্রাম্প প্রশাসনের ক্ষমতায় থাকার পরও নির্বাচনে তার দল হেরে যাবার দৃষ্টান্ত তুলে ধরে বলেছেন মালয়েশিয়াসহ ভারতেও ক্ষমতাসীন দলের অধীনে নির্বাচন হয়। বাংলাদেশেও সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। জনগণ ভোটের মালিক। নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতার পালা বদলের কোন সুযোগ নেই। কোন অপশক্তি দেশের ওপর ভর করুক তা কারো কাম্য নয়।

তিনি শুক্রবার দুপুরে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় পরিদর্শনে গেলে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। তিনি অপর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন নির্বাচন চলাকালীন সময় সংসদ নিস্ক্রিয় থাকবে। সরকারের মন্ত্রীরা শুধু রুটিন কাজ করবেন। কোন প্রকল্প গ্রহণ, অনমোদন কিংবা বদলী পদায়ন করা যাবে না।

এ সময় নাটোর -১ আসনের এমপি আবুল কালাম আজাদ, কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, পৌর মেয়র হাজী নিজাম উদ্দিন, দলের প্রচার সম্পাদক উজ্জল কুমার ভৌমিক, ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান মুকুল, যুবলীগসভাপতি বিপ্লব সরকার, সাধারণ সম্পাদক আলী আসলামসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার বগুড়া সফর শেষে সন্ধ্যায় নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার আগে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার চান্দাইকোনা বাজারে এবং সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বহুলী ইউনিয়নের ডুমুর গোলামী মাঠে পৃথক জনসভায় বক্তৃতা দেন। তিনি জনসভায় নির্বাচন নিয়ে কারো কোন শঙ্কা থাকার অবকাশ নেই মন্তব্য করে বলেন ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন নির্বাচন হবে অবাধ ও নিরপেক্ষ। ভোট জনগণের অধিকার। জনগণ যাকে খুশি তাকে ভোট দেবে। জোর জবরদস্তির কোন সুযোগ নেই।’

চান্দাইকোনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফিরোজ আহমেদের সভাপতিত্বে পথসভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হান্নান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, আবুল কালাম আজাদ হৃদয়, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম মাইকেল, সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মেহেদি হাসান ইলিয়াস, সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন সরকার।

বহুলীর জনসভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি টিএম মঞ্জুরুল ইসলাম। বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বারী তালুকদার, প্রস্তাবিত মনসুর নগর থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক আব্দুল লতিফ তারিনসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।