আন্তর্জাতিক

খাশোগি হত্যা: সৌদি কনসাল জেনারেলের বাসভবনে এসিডের আলামত

ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসাল জেনারেলের বাসভবনে হাইড্রোফ্লুরিক এসিড ও অন্যান্য রাসায়নিকের আলামত পাওয়া গেছে। তুরস্কের অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ের সূত্র এই তথ্য জানিয়েছে। সূত্র জানায়, হত্যাকারীরা কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ আল-ওতায়বি’র বাসভবনের একটি কক্ষে খাশোগির মরদেহ এসিডে গলিয়ে ফেলে।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, খাশোগি হত্যার প্রায় দুই সপ্তাহ পর ওই ভবনে তল্লাশি চালায় তদন্তকারীরা। এটা হতে পারে খাশোগির মরদেহ এসিড দিয়ে পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করতেই এই দুই সপ্তাহ সময় নেওয়া হয়েছে। কিছুদিন আগেই তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপে এরদোয়ানের একজন উপদেষ্টা দাবি করেন, সাংবাদিক খাশোগির মরদেহ এসিডে গলিয়ে নিশ্চিহ্ন করা হয়েছে।

সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের সনদ নিতে গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলস্থ সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর থেকে নিখোঁজ হন খাশোগি। সৌদি আরব স্বীকার করেছে যে, কনস্যুলেট ভবনেই খুন হয়েছেন খাশোগি। তবে তার মরদেহ এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি।

দিকে খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে আগামী সপ্তাহে কঠোর মতামত দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, খাশোগি হত্যাকাণ্ডের সমাধানে মার্কিন কংগ্রেস, তুরস্ক ও সৌদি আরবের সঙ্গে কাজ করছি।

অন্যদিকে খাশোগি হত্যাকাণ্ড নিয়ে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান যখন কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন তখন তার প্রতি নিজের সমর্থনের বিষয়টি জনসম্মুখে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছে বাদশাহ সালমান! যুবরাজকে নিয়ে সৌদি আরবের বিভিন্ন অঞ্চল সফরে বেরিয়েছেন তিনি। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ৮২ বছর বয়সী সালমানের জনসমক্ষে আসার প্রধান কারণ ছেলের প্রতি সমর্থন দেখানো।