রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর মনোনয়ন দাখিল

সংসদীয় আসনের মধ্য ভিআইপি আসন হিসেবে পরিচিত রংপুরের পীরগঞ্জে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আওয়ামী লীগের দুজন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা টিএমএ মমিনের নিকট আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এবং পরে নিজের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি।

এ সময় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ এইচএন আশিকুর রহমান এমপি, উপ-কমিটির সদস্য রাশেক রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, সিনিয়র সহ-সভাপতি ছায়াদত হোসেন বকুল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহিদুল ইসলাম পিন্টু, বিএনপি থেকে সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী সাবেক এমপি বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মন্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান রাঙ্গা, সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামিম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোনায়েম সরকার মানু, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হাসান রনি তার সঙ্গে ছিলেন।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক একান্ত সচিব সেলিমা বেগম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জাহাঙ্গীর আলম বুলবুল, রংপুর জজকোর্টের পিপি আব্দুল মালেকসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।

মনোনয়ন দাখিলের পর স্পিকার জানান, দলীয় সিদ্ধান্তে পীরগঞ্জ আসনে প্রধানমন্ত্রী এবং আমি নিজে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনয়ন দাখিল করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করেন তিনি। পরে স্পিকার পায়ে হেঁটে উপজেলা পরিষদ থেকে দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত হন।

এ সময় আওয়ামী লীগ এবং তার অঙ্গসংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদের বিগত ৫ বছর উন্নয়ন কার্যক্রমে একসঙ্গে কাজ করায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এর আগে স্পিকার বড়দরগাহ শাহ ইসমাঈল গাজী (রহ:) এবং লালদিঘীর ফতেহপুরে প্রয়াত পরমাণু বিজ্ঞানী ড.এমএ ওয়াজেদ মিয়ার কবর জিয়ারত করেন।

উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিনবার এবং সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ দুইবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন এ আসনে। পীরগঞ্জ উপজেলায় ১টি পৌরসভা ও ১৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এ নির্বাচনী এলাকা ভিআইপি আসন হিসেবে পরিচিত। এক সময় জাতীয় পার্টির দূর্গও বলা হতো এ আসনকে। তবে ২০০৮ ও ২০১৪ সালে এখানে নৌকার হাল ধরে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ ঘটিয়েছেন।