ক্রীড়াঙ্গন

কঠিন সময়ে রোমার মুখোমুখি রিয়াল

কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জি গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আজ রাতে রোমার বিপক্ষে মাঠে নামছে। দিনের অন্য ম্যাচে ভ্যালেন্সিয়াকে আতিথ্য দেবে ইতালি চ্যাম্পিয়ন জুভেন্তাস।

ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি ‘এফ’ গ্রুপে শ্রেষ্ঠত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে অলিম্পিক লিঁওর মুখোমুখি হতে যাচ্ছে। এছাড়াও দিনের অন্য ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখ এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড নিজেদের মাঠে আতিথ্য দেবে যথাক্রমে বেনফিকা এবং ইয়ং বয়েজকে।

রিয়াল এবং রোমা সমান নয় পয়েন্ট নিয়ে মুখোমুখি হচ্ছে। ফলে এই ম্যাচ জিতে পয়েন্ট তালিকার চূড়ায় জেঁকে বসার হাতছানি আছে দুই দলের সামনেই। তবে এমন ম্যাচে শিরোপাধারীরা পা দিচ্ছে কিছুটা কোণঠাসা পরিস্থিতিতে থেকে।

মৌসুমে বাজে সূচনার ফলে চাকরি হারিয়েছিলেন এ বছরেই দলের কোচ হয়ে আসা হুলেন লোপেতেগুই। তারপর অন্তর্বর্তীকালীন কোচ সান্তিয়াগো সোলারির অধীনে দুঃসময়কে পেছনে ফেলার ইঙ্গিতই দিচ্ছিলেন বেল-বেনজেমারা। আশাবাদী রিয়াল সোলারির চাকরিও স্থায়ী করে দেয়। কিন্তু পাকাপাকি হবার পর প্রথম ম্যাচেই আবারো পা হড়কেছে রিয়াল।

স্প্যানিশ লিগে এসডি এইবার এর মাঠ থেকে ৩-০ গোলে বিদ্ধস্ত হয়ে ফিরে তারা। সে হিসেব নিকেশ ইউরোপীয় শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে কোনো প্রভাব ফেলবে না। কিন্তু খেলোয়াড়দের মানসিকতায় ফেলতে পারে।

রোমা গেল কয়েক মৌসুম ধরে ভালো ফুটবলই খেলছে। বিশেষ করে গত মৌসুমে রিয়ালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্ব্বী বার্সেলোনাকে হারিয়ে খেলেছিলো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালেও। এই মৌসুমেও সে ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে কোচ ইউসেবিও ডি মাত্তেওর দল। তাই রোমার বিপক্ষে বাড়তি সতর্কতাই অবলম্বন করতে হবে সোলারিকে।

রিয়াল ইতোমধ্যে রোমার বিরুদ্ধে দল ঘোষণা করে ফেলেছে । চোটের কারণে এইবার এর বিপক্ষে খেলতে না পারা গোলরক্ষক কেইলর নাভাস অনুশীলনে ফিরলেও তাকে দলে রাখেননি কোচ। এছাড়া নিয়মিত একাদশের সবাই আছেন ঘোষিত দলে।

শিরোপা প্রত্যাশী জুভেন্তাস নিজেদের মাঠ আলিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে ভ্যালেন্সিয়ার মুখোমুখি হবে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে আগের ম্যাচে হেরে গেলেও গ্রুপ ‘এইচ’ এর শীর্ষেই অবস্থান করছে ম্যাসিমিলানো অ্যালেগ্রির শিষ্যরা। তাছাড়া জুভেন্তাসের জার্সি গায়ে বিবর্ণ সূচনাকে পেছনে ফেলে দারুণ ফর্মে আছেন দলের তারকা ফরোয়ার্ড ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোও। রোনালদোয় ভর করে এই ম্যাচে জিতে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করে ফেলতেই চাইবে ইতালীয় চ্যাম্পিয়নরা। গ্রুপটির অন্য ম্যাচে নিজেদের মাঠ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইয়ং বয়েজকে আতিথ্য দেবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

এদিকে ‘এফ’ গ্রুপের ম্যাচে স্বাগতিক অলিম্পিক লিওঁর মুখোমুখি হবে ম্যানইউ’র নগর প্রতিপক্ষ ম্যানচেস্টার সিটি। গ্রুপ পর্বে এর আগের দেখায় সিটিকে তাদেরই মাঠে ২-১ গোলে হারিয়েছিলো লিওঁ। নিজেদের মাঠেও জয় তুলে নিয়ে সিটির সমানসংখ্যক পয়েন্টে উঠে আসতে চাইবে ফরাসি দলটি।

বায়ার্ন মিউনিখ নিজেদের মাঠে মুখোমুখি হবে বেনফিকার। সামপ্রতিক ফর্ম খারাপ হলেও কোচ নিক কোভাচের দলকে অনুপ্রেরণা যোগাচ্ছে ইতিহাস। পর্তুগীজ দলটির বিপক্ষে শেষ নয়বারের দেখায় কখনোই হারেনি বায়ার্ন। ছয়টি গোল হজমের বিপরীতে করেছে ২১ গোল। এছাড়াও শেষ ২৭টি গ্রুপ ম্যাচের ২৫টিতেই জয়লাভ করেছে বায়ার্ন। সেই ধারা অব্যাহত রাখার লক্ষ্যেই আজ রাতে মাঠে নামবে তারা।