জাতীয়

ভাসাবি স্কুল কাবাডি শুরু বুধবার

রাজধানীর ১১৫টি স্কুলের অংশগ্রহণে বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) শুরু হচ্ছে ভাসাবি স্কুল কাবাডি-২০১৮ প্রতিযোগিতা। চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

প্রতিযোগিতায় ৬৩টি বালক ও ৫২টি বালিকা বিদ্যালয় অংশ নিচ্ছে। এই প্রতিযোগিতা থেকে বাছাইকৃত বালক ও বালিকাদের দুটি দল ভারতে অনুষ্ঠিতব্য কিডস কাবাডি টুর্নামেন্টে অংশ নেবে।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান, বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও পুলিশের ডিআইজি মো. হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, আমাদের জাতীয় খেলা কাবাডি। কিন্তু এ খেলাটা গ্রামাঞ্চলে বেশি পরিচিত। শহর পর্যায়েও এর প্রসার ও জনপ্রিয়তা বাড়াতে আমাদের এই উদ্যোগ।

ভবিষ্যতে এমন প্রতিযোগিতা দেশব্যাপী আয়োজনের পরিকল্পনার উল্লেখ করে তিনি বলেন, এবারের টুর্নামেন্ট থেকে বাছাইকৃত বালক ও বালিকাদের দুটি দল ভারতে অনুষ্ঠিতব্য কিডস কাবাডি টুর্নামেন্টে অংশ নেবে।

তিনি বলেন, দেশে জাতীয় পর্যায়ে কাবাডি খেলার কোনো অবকাঠামো নেই। তবে মৌলভীবাজার ও বাগেরহাটে বেসরকারি উদ্যোগে দুটি কাবাডি স্টেডিয়াম তৈরি করা হয়েছে। ফুটবল-ক্রিকেটের মতো কাবাডিকেও আমরা জনপ্রিয় করতে চাই। জাতীয় খেলা বিবেচনায় কাবাডিকে যতোটা পরিচর্যা করা সম্ভব তা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, কাবাডির মাধ্যমে বিশ্বের দরবারে আমাদের জাতীয় পতাকাকে পরিচিত করতে চাই। সেই প্রত্যাশা থেকে খেলোয়াড় তৈরির জন্য স্কুল পর্যায়ে কাবাডি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। যেন ছোটবেলা থেকে একজন শিক্ষার্থী খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে উঠতে পারে।

এ সময় শহরের দখলকৃত মাঠগুলো পুনরুদ্ধারে পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হবে বলে জানান তিনি।

ভাসাবির চেয়ারম্যান তামিম বলেন, আমরা গত দেড় বছর ধরে কাবাডির সঙ্গে আছি। এখন আমরা ২০১৮-১৯ সালের কাজ করছি। আশা করছি ভবিষ্যতে আরও বড় আকারে পাশে থাকতে পারব।

উল্লেখ্য, ৬৫ লাখ টাকা বাজেটের এ টুর্নামেন্ট ৫টি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে। এতে মোট ১ হাজার ৭২৫ জন খেলোয়াড় অংশ নেবে। তাদের মধ্যে ৯৪৫ জন বালক ও ৭৮০ জন বালিকা। পুরস্কার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ৪০ হাজার টাকা এবং রানার আপ দল পাবে ৩০ হাজার টাকা।