ক্রীড়াঙ্গন

ভারতের কাছেও বিধ্বস্ত বাংলাদেশ

এশিয়া কাপে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে বিধ্বস্ত হওয়া বাংলাদেশকে এবার সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচে গুঁড়িয়ে দিল ভারত।

শুক্রবার দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ হেরেছে ৭ উইকেটে।

এদিন টপ অর্ডার ব্যর্থ, পারেনি মিডল অর্ডারও। তবে জ্বলে উঠলো লোয়ার অর্ডার। যেখানে মিরাজ ও মাশরাফির দুটো সময় উপযোগী ইনিংস না থাকলে চরম লজ্জাতেই পড়তে হতো বাংলাদেশকে। ৪৯.১ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে টাইগাররা করেছে ১৭৩ রান।

অষ্টম উইকেটে মাশরাফির সঙ্গে মিরাজের গড়া ৬৬ রানের জুটিটাই ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ ম্যাচের হাইলাইট। বাংলাদেশ অধিনায়কের অবদানও কম নয় সেখানে, ৩২ বলে তিনি ২ ছক্কায় করেছেন ২৬ রান।

ভারতের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ৪টি উইকেট পেয়েছেন এক বছরেরও বেশি সময় পর ওয়ানডেতে ফেরা রবীন্দ্র জাদেজা, ম্যাচসেরাও তিনি। তিনটি করে উইকেট নেন জশপ্রীত বুমরাহ ও ভুবনেশ্বর কুমার।

বড় স্কোর গড়তে পারেনি বাংলাদেশ। কিন্তু বোলিংয়ে ভালো একটা শুরুর প্রত্যাশা ছিল। যদিও হয়নি তা। শিখর ধাওয়ান ও রোহিত শর্মা দারুণ শুরু শুরু এনে দেন ওপেনিংয়ে। ১০ ওভারে স্কোর ৫০ ছাড়ায় এই জুটি। অবশেষে তাদের প্রতিরোধ ভাঙেন সাকিব। ধাওয়ানকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান। আউট হওয়ার আগে ৪০ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলে যান ধাওয়ান।

বাংলাদেশ আরেকবার উইকেট উদযাপন করে রুবেল হোসেনের সৌজন্যে। তার দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে আম্বাতি রাইডুকে ফেরালেন সাজঘরে। ১০৬ রানে ভারতের দ্বিতীয় উইকেট পায় বাংলাদেশ।

তারপর রোহিতকে নিয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনি দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু লক্ষ্য থেকে ৪ রান দূরে থাকতে মাশরাফি মুর্তজার বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে মেহেদী হাসান মিরাজের ক্যাচ হন ধোনি। ভারতের জয় আসে রোহিত ও দিনেশ কার্তিকের হাত ধরে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ৪৯.১ ওভারে ১৭৩ (লিটন ৭, শান্ত ৭, সাকিব ১৭, মুশফিক ২১, মিঠুন ৯, মাহমুদউল্লাহ ২৫, মোসাদ্দেক ১২, মাশরাফি ২৬, মিরাজ ৪২, মুস্তাফিজ ১, রুবেল ০; ভুবনেশ্বর ৩/৩২, বুমরাহ ২/৩৭ , চেহেল ০/৪০, জাদেজা ৪/২৯, কুলদীপ ০/৩৪)।

ভারত: ৩৬.২ ওভারে ১৭৪/৩ (রোহিত ৮৩*, ধাওয়ান ৪০, রায়ডু ১৩, ধোনি ৩৩, কার্তিক ১*; মাশরাফি ১/৩০, মিরাজ ০/৩৮, মুস্তাফিজ ০/৪০, সাকিব ১/৪৪, রুবেল ১/২১)।

ফল: ভারত ৭ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরা: রবীন্দ্র জাদেজা