আন্তর্জাতিক

ইসরায়েলের চাপে গাজায় হামলার শিরোনাম পাল্টাল বিবিসি!

গাজায় ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বিমান হামলার শিরোনাম পরিবর্তন করে সমালোচনার মুখে পড়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। সমালোচকদের দাবি, ইসরায়েলি চাপের কাছে নতি স্বীকার করে সংবাদমাধ্যমটি পক্ষপাতিত্বের প্রমাণ দিয়েছে।

গত বুধবার গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলার খবর প্রকাশ করে বিবিসি। সেই সংবাদের শিরোনাম নিয়ে কঠোর সমালোচনা করে ইসরায়েলি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এছাড়া ব্রিটিশ ইহুদিদের বোর্ড অব ডেপুটিসও এর কঠোর সমালোচনা করে।

বিবিসির সংবাদের শিরোনামে লেখা হয় ‘ইসরায়েলি বিমান হামলায় ‘নারী ও শিশু নিহত’। বুধবার রাতের ওই ঘটনায় গর্ভবতী এক নারী ও দুই শিশু নিহত হয়।

বিবিসির ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এমানুয়েল নাশোন বিবিসির কঠোর সমালোচনা করে তাৎক্ষণিকভাবে তা সরিয়ে ফেলার আহ্বান জানান।

টুইটার বার্তায় তিনি লেখেন, ‘এই শিরোনাম বাস্তবতার ভুল উপস্থাপন। ইসরায়েলিরা হামাসের লক্ষ্যবস্তু হয় আর আইডিএফ (ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী) তাদের রক্ষায় পদক্ষেপ নেয়। দ্রুত বদল করুন।’

বিবিসির শিরোনামকে ভয়ানক আখ্যা দিয়ে বোর্ড অব ডেপুটিস জানায়, এর বিরুদ্ধে তারা একটি অভিযোগ দায়ের করছে জানিয়ে অন্যদেরও একই পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানায়।

বিবিসি পরে তাদের শিরোনাম পুরোপুরি পাল্টে ফেলে। বদলে ফেলা ওই শিরোনামটি ছিল ‘‘ইসরায়েলে রকেট আঘাতের পর গাজায় বিমান হামলায় ‘নারী ও শিশু নিহত’।

শিরোনামের এই নাটকীয় পরিবর্তন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের মনোযোগ আকর্ষণ করে। বিদেশি একটি রাষ্ট্রের নির্দেশনায় বিবিসির শিরোনাম বদলানোর ঘটনায় অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেন।

ব্রিটিশ ভাষ্যকার ওয়েই জোনস টুইটারে লেখেন, ‘ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় চাইলো আর বিবিসির শিরোনাম বদলে ফেললো। বিস্ময়কর!’

এদিকে বিবিসির এক মুখপাত্র বলেছেন, প্রথম শিরোনামটি যদিও ভুল কিছু ছিল না তবুও আমরা বাড়তি তথ্য দিয়ে এটি আপডেট করেছি।