সারাদেশ

সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

গত বছরের তুলনায় এ বছর সাতক্ষীরায় দুই হাজার ১৩৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ বেড়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানায় জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর।

বাজার দর ভালো এবং আবাদ সহজ হওয়ায় সরিষা চাষে দিন দিন আগ্রহী হয়ে উঠছেন চাষিরা। তবে জেলার শ্যামনগর উপজেলায় মাত্র ৪৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে।

সাতক্ষীরার তালা সদরের কৃষক রফিকুল ইসলাম খান বলেন, আমন ধান চাষাবাদের পর জমি ফেলানো থাকে। সেখানে কম খরচে সরিষার চাষাবাদ করলে একটি অতিরিক্ত ফসল পাওয়া যায়। আমি দুই বিঘা জমিতে সরিষার আবাদ করেছি। ফলনও ভালো হয়েছে। সরিষার প্রতি মণ ১৮০০ থেকে দুই হাজার টাকা বিক্রি হয়।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের সহকারী কর্মকর্তা সাব্যসাচী বলেন, গত বছর জেলার সাতটি উপজেলায় সরিষার আবাদ হয়েছে ১০ হাজার ৫৪০ হেক্টর জমিতে। এ বছর ২ হাজার ১৩৫ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষাবাদ বেশি হয়েছে। সরিষা গাছের মুকুল থেকে কেবল ফল আসা শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সরিষার বাম্পান ফলন হবে।

তিনি আরও বলেন, সাতক্ষীরা সদরে ৩১৮০ হেক্টর, তালা উপজেলায় ৪৬০ হেক্টর, কালিগঞ্জ উপজেলায় ৩৬০ হেক্টর, শ্যামনগর উপজেলায় ৪৫ হেক্টর, আশাশুনি উপজেলায় ১৮০ হেক্টর, দেবহাটা উপজেলায় ১১৭৫ হেক্টর ও কলারোয়া উপজেলায় ৫১৪০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে।

শ্যামনগর উপজেলায় সব থেকে কম সরিষা চাষাবাদ হওয়ার কারণ হিসেবে কৃষি কর্মকর্তা সাব্যসাচী বলেন, শ্যামনগর উপজেলার জমি লবণাক্ত হওয়ার কারণে কৃষি উৎপাদন কম হয়। তাই সরিষার আবাদও কম হয়েছে।