আন্তর্জাতিক

‘প্রতিযোগিতায় টিকতে না পেরেই হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

ফাইভ-জি ইন্টারনেট প্রযুক্তি নিয়ে চীনের সঙ্গে টিকতে না পেরেই যুক্তরাষ্ট্র হুয়াওয়ের উপ-প্রধান মেং ওয়াঝৌ এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমগুলো। চীনের রাষ্ট্রীয় পত্রিকা চায়না ডেইলি বলছে, ‘মেংকে গ্রেপ্তারের ঘটনা হুয়াওয়ের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের ঘৃণ্য ডাকাতসুলভ হামলা। এর উদ্দেশ্য চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানকে দমিয়ে রাখা।’ খবর ব্রিটিশ সংবাদ ডেইলি মিররের।

গেল ১ ডিসেম্বর চীনা প্রযুক্তি কোম্পানি হুয়াওয়ের উপ-প্রধান ও প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা মেং ওয়াঝৌকে কানাডার ভ্যাঙ্কুভার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। বুধবার এক বিবৃতির মাধ্যমে তার আটক হওয়ার বিষয়টি প্র্রকাশ করেন কানাডার বিচার মন্ত্রী। পরে যুক্তরাষ্ট্র তাকে হস্তান্তরের দাবি জানায়।

গ্রেপ্তারের কারণ সম্পর্কে কানাডার পক্ষ থেকে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। তবে ইরানের উপর অবরোধের শর্ত লঙ্ঘনের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে আগে থেকেই তদন্ত চলছিলো যুক্তরাষ্ট্রে।

আরও পড়ুনঃ নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবেন মাহী বি চৌধুরী

চায়না ডেইলির অভিযোগ, মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো বর্তমানে হুয়াওয়ের সঙ্গে টিকতে পারছে না। তাই আন্তর্জাতিক আইনের অপব্যবহার করে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

‘প্রতিযোগিতায় টিকতে না পেরেই হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

একটি সম্পাদকীয়তে রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত পত্রিকা গ্লোবাল টাইমস লিখেছে, ‘চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে দমিয়ে রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের ঘৃণ্য অপচেষ্টা রুখতে চীন সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে।’

বৃহস্পতিবার কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেন, ‘মেং ওয়াঝৌকে গ্রেপ্তারে কোন ধরণের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। কানাডা এমন একটি দেশ যেখানে স্বতন্ত্র বিচার ব্যবস্থা আছে, এ বিষয়ে আমি সবাইকে আশ্বস্ত করতে চাই।’

চীন মেংকে আটক করার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। শিগগিরই তাকে মুক্তি দেয়ারও দাবি করেছে দেশটি।